পল্লী বিদ্যুৎমিটার আবেদন করার নিয়ম ২০২২ ও আবেদন ফি আপডেট

পল্লী বিদ্যুৎমিটার আবেদন করার নিয়ম ২০২২ ও আবেদন ফি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন এই পোস্টের মাধ্যমে। আমরা অনেকেই নতুন মিটার সংযোগ দিতে চাই, কিন্তু এই জন্য আবেদন করার প্রক্রিয়া সম্পর্কে বিস্তারিত জানি না। এই পোস্টের মাধ্যমে আমরা পল্লী বিদ্যুৎ এর নতুন সংযোগ এর জন্য কিভাবে অনলাইনে আবেদন করতে হয় সেই সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবো।

পল্লী বিদ্যুৎমিটার আবেদন করার নিয়ম ২০২২ আপডেট

পল্লী বিদ্যুৎমিটার আবেদন করার নিয়ম ২০২২ সম্পর্কে এখন জানতে পারবেন। পল্লী বিদ্যুৎ মিটার পাওয়ার জন্য অবশ্যই আপনাকে প্রথমে আপনি যে অঞ্চলে বসবাস করেন সেই অঞ্চলের পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের ওয়েবসাইটে গিয়ে অনলাইনের নতুন মিটারের জন্য আবেদন করতে হবে। এখানে আমরা আবেদন করার সম্পূর্ন প্রক্রিয়াটি তুলে ধরবো।

মিটারের আবেদন করার জন্য আপনার সর্বপ্রথম যে জিনিসগুলো লাগবে তা হলো:

  • একটি স্মার্টফোন অথবা একটি ল্যাপটপ বা কম্পিউটার।
  • তারপর আপনার ইন্টারনেট কানেকশন লাগবে।

এগুলো থাকলে আপনি খুব সহজেই নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন।

নতুন পল্লী বিদ্যুৎ মিটারের জন্য আবেদন করতে চাইলে আপনার যে ধাপগুলো শেষ করতে হবে তা হলো:

  • সর্বপ্রথম আপনাকে আপনার আঞ্চলিক পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের ওয়েবসাইটটি খুঁজে বের করতে হবে।
  • ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পর আপনাকে দেখতে হবে নতুন মিটার সংক্রান্ত বাটনটি কোথায় আছে, তারপর বাটনটিতে ক্লিক করুন।
  • তারপর আপনাকে একটি ফরম পূরণ করতে হবে।
  • উক্ত ফরমটিতে এনআইডি নাম্বার, আপনার মোবাইল নাম্বার, মিটারটি যার নামে হবে তার নাম, ও অন্যান্য সকল তথ্য দিতে হবে।
  • যে তথ্যগুলো আপনি ফর্মে পূরণ করবেন সেগুলো যেন নির্ভুল ভাবে হয়ে থাকে সে দিকে লক্ষ্য রাখবেন।

 

পল্লী বিদ্যুৎ মিটারের আবেদন করার জন্য যে ড’কুমেন্ট লাগবে

পল্লী বিদ্যুৎ মিটারের আবেদন করার জন্য অনেকগুলো ডকুমেন্ট লাগবে। নিচে ডকুমেন্ট গুলি সম্পর্কে তুলে ধরা হলো:

  • নতুন মিটারের আবেদনের সময় ছবি জাতীয় পরিচয় পত্র ফটোকপি ও খারিজের স্ক্যান কপি অবশ্যই সংযুক্ত করতে হবে।
  • মনে রাখবেন, সংযোগ স্থান থেকে সার্ভিস খুঁটির দূরত্ব অবশ্যই ১৩০ ফিটের মধ্যে থাকতে হবে।
  • খুঁটির সাথে সংযোগের দূরত্ব ভালো করে মাপতে হবে,তারপর সেই তথ্য ভালো ভাবে দিতে হবে।
  • সর্বমোট লোড ৫০ কিলো ওয়াট এর বেশি হলে একটি সংযোগ প্রযোজ্য হবে।
  • অনলাইনে আবেদন করার পর প্রয়োজনীয় ফি পরিশোধ করতে হবে।
  • মনে রাখতে হবে, আবেদন ফরমে লাল চিহ্নিত ক্ষেত্রগুলো অবশ্যই ভালোভাবে পূরণ করতে হবে। নাহলে পরবর্তীতে নানা রকম সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে।
  • আবেদনপত্রে গ্রাহকের নিজের মোবাইল নাম্বার প্রদান করতে হবে এসএমএস পাওয়ার জন্য, নাম্বারটি সঠিকভাবে দিতে হবে।
  • সঠিকভাবে আবেদন করার পর প্রাপ্ত ট্রাকিং আইডি এবং পিন নাম্বার অবশ্যই সংরক্ষণ করতে হবে।
  • প্রদানকৃত ফি ডাচ বাংলা ব্যাংকের মোবাইল ব্যাংকিং (রকেট) এর মাধ্যমে পরিশোধ করা যাবে।

 

নতুন পল্লী বিদ্যুৎমিটারের আবেদন ফি কত জানুন

এবার আমরা নতুন পল্লী বিদ্যুৎমিটারের আবেদন ফি সম্পর্কে জানবো। পল্লী বিদ্যুতের নতুন মিটারের আবেদন করার জন্য আপনাকে ডাচ বাংলা ব্যাংকের মোবাইল ব্যাংকিং রকেট এর মাধ্যমে পরিশোধ করতে হবে। পরিশোধ করার জন্য আপনাকে নিচের ছবিটি ফলো করতে হবে।

  • প্রথমে আপনাকে রকেট এ পেমেন্ট অপশনে ক্লিক করতে হবে।
  • তারপর বিল পে অপশনে ক্লিক করতে হবে।
  • এর পর সেল্ফ এ ক্লিক করতে হবে।
  • বিলার আইডি ক্লিক করুন।
  • তারপর উক্ত ট্র্যাকিং নাম্বারটি ব্যবহার করুন।
  • রেফার নং ক্লিক করুন।
  • তারপর আপনার নির্ধারিত ফি অ্যামাউন্ট লিখতে হবে।
  • এরপর আপনার পিন নাম্বারটি দিলেই বিল পরিশোধ হয়ে যাবে।

 

মিটার নিয়ে শেষ কথা

পল্লী বিদ্যুৎমিটার আবেদন করার নিয়ম ২০২২ ও আবেদন ফি লেখাটি পড়ার জন্য আপনাতে অসংখ্য ধন্যবাদ। আশা করছি আপনি এখন পল্লী বিদ্যুৎমিটার আবেদন করার নিয়ম ২০২২ ও আবেদন ফি সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। আপনার দিনটি শুভ হোক।