কিছু সহজ উপায়ে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করুন

এমনকি ফেসবুক পেজ ও গ্রুপ তৈরি করে ফেসবুকের বি’জ্ঞাপন ব্যবহার করে ফেসবুক থেকে টা’কা আয় করছে। তাছাড়া ফেসবুক পেজে ভিডিও আ’পলোড করে ইউটিউবের মত ফেসবুক থেকে টাকা আয় করা সমম্ভব হ’চ্ছে।

তাছাড়াও ফেসবুকে আ’পনার জ’নপ্রিয়তা থাকলে আপনি বিভিন্ন উপায়ে ফেসবুক হতে সহ’জে টাকা আয় করতে পারবেন। ফেসবুকে কিভাবে টাকা আয় করা যায় আমরা আজকের পোস্টে এই বিষয় নিয়ে আলোচনা করব।

আপনি যদি জানতে চান কিভাবে ফে’সবুক হতে টাকা আয় করতে হয়, তাহলে পো’স্টটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ দিয়ে পড়বেন। তাহলে আমার বিশ্বাস আপনিও ফেসবুক থেকে প্রতি মাসে কিছু টাকা আয় ক’রতে পারবেন। বর্তমান সময়ের সবচাইতে জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া বা সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম হচ্ছে ফেসবুক।

সেই জন্য ফেসবুক নিয়ে নতুন করে আ’লোচনা করার কিছু নেই। আমার ৫ বছরের ছেলেও মোবাইল হাতে পেলে ফেসবুক ব্যবহার করা শুরু করে। সে মোবাইল না পে’লে তার মাকে এবং আমাকে প্রায় বলে থাকে আ’ব্বু আপনার মোবাইলটা আমাকে দাও, আমি ফেসবুক ব্যবহার করব। প্রথম প্র’থম ছেলের মুখে এমন কথা শুনে অবাক হতাম, কিন্তু এখন সেটা আমার জন্য স্বাভাবিক হয়েগেছে।

এখনকার সময়ে এটা বলতে কোন দ্বিধা নে’ই যে, ফেসবুক হচ্ছে পৃথিবীর সবচেয়ে জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া। পুরো বিশ্ব মানবের একটি বিরাট অংশ ফেসবুক এর সাথে যু’ক্ত হয়ে আছে। সারা বিশ্বে প্রতি মাসে ২.৯১ বিলি’য়ন একটিভ ফেসবুক ইউজার রয়েছে।

তার মধ্যে প্রতিদিন গড়ে ১.৯৩ বিলিয়ন লো’ক ফেসবুক ব্যবহার করে। আপনি শুনলে আরো অবাক হবেন যে, প্রতি এক সেনেন্ডে গড়ে ৫ টি নতুন ফেসবুক একা’উন্ট তৈরি হয়ে থাকে। এই পুরো কাজ নি’য়ন্ত্রন করার জন্য ফেসবুকের ৪৪৪৯২ জন স্পেশালিস্ট প্রতিদিন কাজ করে থাকে। ফেসবুকের এই পরিসংখ্যান প্রতিনিয়ত বৃদ্ধি পা’চ্ছে এবং ভবিষ্যতে ইহা বাড়তে থাকবেই।

 

কয়েকটি পদ্ধতিতে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করা যায়

ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার অনেকগুলো উপা’য় রয়েছে। আপনি চেষ্টা ক’রলে আপনার হাতে থাকা মোবাইল দিয়ে ফেসবুক হতে টাকা আয় করতে পারবেন। আজকের পোস্টে আমরা ফেসবুক থেকে আয় করার উপায়গুলো পয়েন্ট আকারে আলোচনা করব।

ফেসবুক থেকে আয়ের বিষয়ে আপনার কোন ধা’রনা না থাকলে আ’জকের পো’স্টটি পড়ার পর বি’স্তারিত জেনে যাবেন। সেই সাথে একটি ফেসবুক একাউন্ট খোলা থেকে শু’রু করে ফেসবুক থেকে টা’কা হাতে পাওয়া অবধি কী কী কা’জ করতে হয় সে বিষয় নিয়ে পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে আলোচনা করব। এখন আমরা ফেসবুক থেকে টাকা আয়ের ১০ টি গু’রুত্বপূর্ণ বিষয় নিম্নে তুলে ধরছি।

ফে’সবুক একা’উন্ট খুলে টাকা আয়

প্রথমে বলে রাখছি ফেসবুক এ’কাউন্ট থেকে অর্থাৎ আপানার আ’মার যে নরমাল ফেসবুক এ’কাউন্ট আছে, যেটি আ’মরা নিয়মিত ব্যবহার করি, সেই একাউন্টের মা’ধ্যমে আমরা সরাসরি ফেসবুক থে’কে টাকা আয় করতে পারব না। কারণ ফেসবুক একটি ইউজার একাউন্ট থেকে সরাসরি টাকা ইনকাম করার কোন উপায় রা’খেনি। আ’মরা জানি যে, একটি ফেসবুক একাউন্টে ৫০০০ হাজার এর বেশি ফ্রেন্ড যুক্ত করা যায় না।

সেই জন্য মূলত ফেসবুক প্রোফাইল হতে কোন ধ’রনের মনিটাইজ করা’র সুযোগ দেয়নি। তবে আপ’নার কোন ধরনের ব্যক্তিগত ব্লগ থাকলে সেই ব্লগের পোস্টগুলো ফেসবুক একাউ’ন্টে শেয়ার করে ফেস’বুক হতে আ’পনার ব্লগের ভি’জিটর বৃ’দ্ধি করে ব্লগের আয় বাড়িয়ে নিতে পারবেন। তবে অধিকাংশ লোক তার ব্যক্তিগত ফে’সবুক একাউন্ট দিয়ে এ ধরনের কাজ করে না।

ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার জন্য অবশ্যই আ’পনার একটি ফেসবুক পে’জ বা ফেসবুক ফ্যান পেজ থাকতে হবে। কেবল মাত্র পেজ ব্যবহার করে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করতে পারবেন।

এজন্য ফেস’বুক ফ্যা’ন পেজ তৈরি করা

ফেসবুক এর অসাধারন সব ফিচার্স এর মধ্যে অন্যতম হল ফেসবুক ফ্যান পেজ বা লাইক পেজ। ফেসবুক প্রোফাইলে যেভাবে বন্ধু বাড়ানোর জন্য ফ্রেন্ড রিকুয়েস্ট পাঠাতে হয় বা ফ্রেন্ড রি’কুয়েস্ট রিসিভ ক’রতে হয়, ফেসবুক ফ্যা’ন প্যা’জ এর ক্ষেত্রে তেমনটি করতে হয় না। আপনার নিজের নামে একটি ফেসবুক লাইক পে’জ থাকলে, যে কেউ আপনার পেজে লাইক করতে পারবে।

আপনার একটি ফেসবুক পেজ থাকলে এবং সেটিতে প্রচুর প’রিমানে ফলোয়ার বা লাইক থাকলে আপনার ফেসবুক পেজকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন উপায়ে ফেসবুক হতে সহজে টাকা আয় করতে পারবেন।

 

ফেসবুক পেজ প্রথমে খুলতে হবে

আপনার যদি এক’টি ফেসবুক পে’জ থাকে এবং সেটি প্রচুর পরিমানে লা’ইক থাকে, তাহলে আপনান নতুন ফেসবুক পেজ তৈরি করার কোন প্রয়ো’জন নেই। তবে আপনার ফেসবুক পেজ না থাকলে ফে’সবুক থেকে আয় শুরু করার পূর্বে প্র’থমে আপনার নিজ নামে অথবা আপনার কোম্পানি কিং’বা আপনার ব্ল’গের নামে একটি ফে’সবুক পেজ তৈরি করে নিতে হবে। আপনি যদি ফেসবুক পেজ তৈরি করতে না জানেন, তাহলেও কোন স’মস্যা নেই, কারণ আমা’দের ব্লগে এ বিষয়ে একটি পোস্ট রয়েছে। আমাদের ব্লগের পোস্টটি পড়লে আপনি খুব সহজে এক’টি ফেসবুক পেজ তৈরি করে নিতে পারবেন।

ফেসবুক পেজ তৈরি করার পর বসে থাকলে ফেসবুক থেকে টা’কা আ’য় করতে পারবেন না। ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার জন্য আপনাকে প্রতিদিন কিছু সময় ব্যয় ক’রতে হবে। কা’রণ যে’কোন উপায়ে টাকা ইনকাম করার জন্য প’রিশ্রম ব্যাতীত টাকা আয় করা সম্ভব হয় না। ঠিক এক’ইভাবে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার জন্য প্রথমে আপনার ফেসবুক পেজের লাইক বাড়িয়ে নিতে হবে।

ফেসবুক থেকে আয় শুরু করার পূর্বে ফেসবুক পেজের লা’ইক বৃ’দ্ধি করে নেওয়া হবে আপনার প্রধান কাজ। ফেসবুকে যেকোন কাজের মাধ্যমে যখন আপনি ফেসবুক পেজের লাইক বা’ড়িয়ে নিবেন, তখন ফেসবুক থেকে আয়ের পথ আপনার জন্য অনেক সহজ হবে।

যখন আপনার ফেসবুক পেজে প্রচুর পরিমানে ফ্যান ফ’লোয়ার থাকবে তখন ফেসবুক থেকে আয় করার নতুন নতুন উপায় আপনি নিজেই খোজে নিতে পারবেন এবং আয়ের বি’ভিন্ন উৎস আপনাকে হাতছানি দিয়ে ডাকবে। সুতরাং ফেসবুক পেজের লাইক বৃদ্ধি করাই হবে আপনার প্রথম ও প্রধান কা’জ। আর আপনি অবশ্যই জানেন ফেসবুক পেজের লাইক বাড়ানোর কাজটি অমনি অমনি হয়ে যায় না। ফেসবুক পেজের লাইক বা’ড়ানোর জন্য আপনাকে এমন কিছু করতে হবে যাতে লোকজন আপনার কাজকে পছন্দ করে।

তবেই অন্যান্য ফেসবুক ইউজাররা আপনার পে’জটি লাইক করতে শুরু করবে। শুরুর দিকে কাজটি আপনার কাছে কঠিন মনে হলেও নিয়মিত কাজ করলে ধিরে ধিরে আপনার ফেসবুক পেজের লাইক অবশ্যই বাড়তে থাকবে।

 

ফেসবুক পেজের লাইক বাড়িয়ে নিতে পারবেন এই উপায়ে

আপনার ফেসবুক পেজের লাইক ও ফলোয়ার বাড়ানোর জন্য নি’চে আমরা কয়েকটি গু’রুত্বপূর্ণ উপায় শেয়ার করছি।

এ কাজগুলো করলে আপনি সহজে আ’পনার ফেসবুক পেজের লাইক বাড়িয়ে নিতে পারবেন।

স্টেপ-১ঃ ট’পিক নি’র্ধারণ

এখানে টপিক ব’লতে আপনি যে বিষয় নিয়ে ফেসবুকে কাজ করবেন সেটাকে বুঝানো হচ্ছে। টপিক বাছাই করার ক্ষেত্রে আমি বলব আপনি যে বিষয়ে ভালো জানে ও বুঝেন অবশ্যই সেই বিষয়ে ফেসবুক পেজে লেখালেখি করুন।

ফেসবুক পে’জে লেখা’লেখি করাটা বর্তমানে এক ধরনে’র ফ্যাশনে পরিনত হয়েছে। আপ’নি হয়ত দেখে থাকেন যে, যারা ফেসবুকে লেখালিখি করে ফেসবুকে তাদের প্রচুর ফ্যান ফলোয়ার থাকে এবং তারা ফেস’বুকে অনেক জনপ্রিয় হয়।

কাজেই আপনি যে বিষয়ে পারদর্শি সেই বিষয়ে ফেসবুকে লি’খালেখি করে আপনার ফেস’বুক পেজের ফ্যান ফলোয়ার ও লাইক বৃদ্ধি করে নিতে পারেন। যেমন: গল্প, কবিতা, উপন্যাস, টেকনো’লজি, ফ্যাশন, লাই’ফস্টাইল ইত্যাদি বিষয়ে লেখালেখি করলে সহজে জনপ্রিয়তা পাওয়া যায়। তাছাড়া আপনি একজন গৃ’হিনী হয়ে থাকলে বিভিন্ন রিসিপি তৈরি, ফ্যাশন ও ডিজাইন বিষয়ে লেখালেখি করে কিংবা ভিডিও তৈরি করে ফেসবুক পেজের লাইক বৃদ্ধি করে নিতে পারেন।

স্টেপ-২ঃ পে’জে নি’য়মিত আ’র্টেল পা’বলিশ করা

আপনি যদি শুধুমাত্র শখের বশে মাঝে মধ্যে আর্টিকেল শেয়ার করেন, তাহলে আপনি অল্পদিনে ফ্যান ফলোয়ার বৃদ্ধি করতে পারবেন না। কার’ণ যারা আ’পনার পাঠক হবে তারা অ’বশ্যই আ’পনাকে নিয়মিত দেখতে চাইবে। এ ক্ষে’ত্রে আপনি মাঝে মধ্যে পোস্ট করলে সেই পোস্টগুলো পাঠক এড়িয়ে চলবে। সে জ’ন্য দ্রুত ফেসবুক পেজের লাইক বৃদ্ধি করার জন্য নিয়মিত পোস্ট করে যেতে হবে।

স্টেপ-৩ঃ ভালো স’ম্পর্ক গড়ে তোলা

যারা আপনার ফ্যান ফলোয়ার ও শুভাকাঙ্খি হবে তা’দের সাথে ফেসবুকে নিয়মিত যোগাযোগ বজায় রাখুন। তারা আপনার পোস্টে কোন ধরনের কমেন্ট করলে সেটির জবাব দে’ন। কমে’ন্টে কোন কি’ছু লেখার না থাকলেও ধন্যবাদ কিংবা ওয়েলকাম জানাবেন। তাছাড়া যারা আপনাকে পা’র্সন্যালি ফেসবুকে ম্যাসেজ করবে তা’দের সাথে ভাব না দেখিয়ে মিনিমাম হাই-হ্যালো সম্পর্ক বজায় রাখার জন্য ম্যাসেজের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করবেন। এ’তেকরে আপনি ফেসবুকে আরো অল্পদিনে জনপ্রিয় হয়ে উঠতে পারবেন।

স্টেপ-৪ঃ বি’ভিন্ন ফে’সবুক গ্রুপে জয়েন করুন

অনলাইনে হাজারো ফেসবুক গ্রুপ রয়েছে যেগুলোর অনেক জনপ্রিয়তা আছে, আপনি সেগুলোতে জয়েন করুন।

মাঝে মধ্যে আপনার দু-একটি পো’স্ট সরাসরি ঐ স’মস্ত ফে’সবুক গ্রু’পে পোস্ট করুন এবং লেখার শেষে আপনার ফেসবুক পেজটির লিংক শেয়ার করে সে’টিতে লাইক করার জন্য অনুরোধ করুন। আপনার লেখা পড়ে ভালো লাগলে লোকজন আপনার ফেসবুক পেজ অবশ্যই লাইক করবে।

২। ফেস’বুক পে’জের মা’ধ্যমে টাকা আয়

আপনার ফেসবুক পেজে যখন প্র’চুর পরিমানে ফ্যান-ফ’লোয়ার ও লাইক থাকবে তখন থেকে আপনি বিভিন্ন উপায়ে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করা শুরু করতে পা’রবেন। ব্যবসা বা প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে ফেসবুক লা’ইক পেজ বা ফ্যান পেজ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষকরে আপনার কোন ব্যব’সা প্র’তিষ্ঠান থাকলে সেই প্রতিষ্ঠানের নামে ফে’সবুক পে’জ তৈরি করে খুব সহজে প্রতিষ্ঠানের প্রচারনা চালাতে পারেন। এছাড়াও য’খন আপ’নার ব্য’বসায়িক প্রতিষ্ঠানের ফেসবুক পে’জে প্রচুর পরিমানে লাইক থাকবে তখন আপনি চাইলে সহজে আপনার প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন পন্য বা প্রোডাক্ট ফে’সবুক পেজে আ’পলোড করে পন্যের প্রচার ও প্রসার চালিয়ে অনলাইনের মাধ্যমে সহজে ক্রেতার নিকট পন্য বিক্রি করতে পারবেন।

 

পেজ থেকে টাকা ইনকাম করার কয়েকটি উপায়

সাধারণত ফেসবুক অফিসিয়ালি দুটি উপায়ে ফেসবুক পেজের মা’ধ্যমে টাকা আয় করার সুযোগ দেয়। যেই টাকা সরাসরি ফেসবুক হতে আপনাকে পরি’শোদ করা হবে। এ ক্ষেত্রে আপনাকে কা’রো সাথে কোন ধরনের কনটাক করার প্রয়োজন হবে না। আপনি সরাসরি আপনার ফেসবুক পেজকে মনিটাইজ করে ফেসবুক হতে টাকা আয় করতে পারবেন।

ফে’সবুকে ভিডি’ও আ’পলোড করে টাকা আয়

সম্প্রতি ইউটিউবের মত ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে ভিডিওতে বিজ্ঞাপন শো করানো মা’ধ্যমে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করা সম্ভব হচ্ছে।

এ আয় করার এই নতুন পদ্ধতিকে বলা হয় বাবা ভি’ডিও এর কিছু নিয়ম বা যোগ্যতা রয়েছে, যে’গুলো ফি’লআপ হলে ফেসবুক পেজে ভিডিও আপলোড করে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করা যায়।

ফেসুবক হ’লো এমন একটি সা’র্ভিস যেটি দিয়ে ফে’সবুক পেজে আপ’লোড করা ভিডিওতে বিজ্ঞাপন বা  শো করানো যায়।

এই বিজ্ঞাপন গুলো যখন লোকজন দেখবে বা ক্লি’ক করবে তখন আ’পনি ফে’সবুক থেকে টাকা আয় করতে পারবেন। তবে ফেসুবক এর বিজ্ঞাপন ফেসবুক পেজ ব্যাতীত অন্য কোথায় ব্যবহার করা যায় না।

ফেসবুক সার্ভিস ব্যবহার করার জন্য আপনার ফেসবুক পেজের কিছু যো’গ্যতার প্রয়োজন হবে। আপনার ফে’সবুকে পে’জে নিচের যোগ্যতাগুলো না থাকলে ভি’ডিওতে  ব্য’বহার করতে পারবেন না। আপনার নি’জের একটি ফেসবুক পেজ থাকতে হবে। ফেসুবক পেজ ছাড়া অন্য কোথায় এর বিজ্ঞাপন ভিডিওতে লাগানো যায় না। আপনার ফেসবুক পেজে ১০,০০০ লাইক থাকতে হবে।

গত ৬০ দিনে আপনার ফেসবুক পে’জের ভিডিওতে মিনিমাম ৩০,০০০ ভিউস থাকতে হবে এবং প্রত্যেকটি ভিউ মিনিমাম ১ মিনিটের হতে হবে।

তাছাড়া আপনার প্রত্যেকটি ভিডিও কমপক্ষে ৩ মিনিট ল’ম্বা হতে হবে। কারণ ৩ মিনিটের ছোট ভি’ডিওতে ফে’সবুক বিজ্ঞাপন শো করে না। আপনার বয়স অবশ্যই কপক্ষে ১৮ হতে হবে। আপনার ভিডিও এর ভাষা ফেসবুক সাপোর্ট করে না, এমন ভিডিও আপলোড করলে ভিডিও মনিটাইজ হবে না। তবে টেন’শনের কোন কারণ নেই, ফেসবুক বাংলা ভাষা সাপোর্ট করে।

ফেসবুক এর মেনে ভিডিও তৈরি করতে হবে। ফেসবুক পেজের এর যোগ্যতা যাচাইঃ আপনার ফেসবুক পেজটি ফে’সবুক এর যোগ্যতা স’ম্পন্ন কি না সেটি যাচাই করার জন্য প্রথমে আপ’নার ফেসবুক একাউন্টে লগইন করতে হবে। তারপর ফেসবুক এর এই অফিসিয়াল লিং’কে ক্লি’ক করে আপনার ফেসবুক পে’জটি এর জন্য এলিজিবল কি না সেটা যাচাই করে নিতে পারবেন।

ব্যবহার করার জন্য আপনার একটি ব্লগ প্রয়োজন হবে এবং ব্লগে কমপক্ষে ২০ টি পো’স্ট থাকতে হবে। আপনার ব্লগে ২০ টি পোস্ট থাকলে সেই পোস্টগুলো আপনার ফেসবুক পেজে শেয়ার করবেন।

শেয়ার করার পর আ’পনি এর টুলস হতে আপনার ব্লগের অ’নুমোদন করার জন্য ফে’সবুকের কাছে আবেদন করতে হবে। ফেসবুক ৫/৭ দিনের মধ্যে আপনার আবেদন রিভিউ করে যো’গ্য মনে করলে আ’পনার পেজের জন্য অনুমোদন দেবে। কেবলমাত্র ফেসবুক অনুমোদন হলে আ’পনার ব্ল’গের পোস্টের ভীতরে ফেসবুকের বিজ্ঞাপন ব্যবহার করতে পারবেন।

বিজ্ঞাপন ব্যবহার করার ক্ষেত্রে গুগল এডসেন্স এর মত আপনার ব্ল’গের বি’ভিন্ন জা’য়গাতে বি’জ্ঞাপনের কোড বসাতে হবে না। ফেসবুক আপনার ব্লগ পোস্টের বিভিন্ন জায়গাতে অটোমেটিক বিজ্ঞাপন শো করবে।

তবে এ ক্ষেত্রে আপনার ব্লগে গুগল এডসেন্স বি’জ্ঞাপন থাকলে সেটি শো হবে না। অ’ধিকন্তু ফেসবুক  শুধুমাত্র মোবাইলের ফেসবুক এ্যাপ এর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।

ফেসবুক এর ওয়েব ভার্সনে সাপোর্ট করে না। এ বি’ষয়ে আরো বি’স্তারিত জানার জন্য উ’পরের লিংক হতে আমাদের ব্লগের ফেসবুক সম্পর্কিত পোস্টটি পড়ে নিবেন।

 

লাইক শেয়ার মার্কেটিং করে টাকা আয়

আপনার কাছে যখন প্রচুর জনপ্রিয় একটি ফে’সবুক পেজ থাকবে এবং আপনার পেজে প্র’চুর পরিমানে ফ’লোয়ার থাকবে, তখন বিভিন্ন অনলাইন মার্কেটার আপনাকে তাদের পে’জে লাইক বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য কিংবা বিভিন্ন ও’য়েবসাইটের পোস্ট শেয়ার করে সেটা মানুষের কাছে পৌছে দেওয়ার জন্য অফার করবে।

তখন আপনি তাদের নিকট হতে বিভিন্ন অং’কের টাকার বিনিময়ে তাদের ফে’সবুক পে’জ কিংবা ওয়েবসাইটের পোস্ট আপনার ফেসবুক পেজে শেয়ার করার মাধ্যমে ক্লা’য়ান্টের নিকট থেকে টাকা আয় করতে পারবেন।

সাধারণত বিভিন্ন অনলাইন মার্কেটারগণ ১০০০ লা’ইকের বিনিময়ে ৫০০-৭০০ টাকা নিয়ে থাকেন। যাদের ফেসবুক পেজে প্রচুর পরিমানে ফলোয়ার আছে, তাদের ক্ষেত্রে ১০০০ লা’ইক পাইয়ে দেওয়া মাত্র ৫ মিনিটের কাজ।

 

পেজটি বিক্রি করেও টাকা আয় করা যায়

অনলাইন মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে ফে’স’বুক পেজের অনেক গু’রুত্ব রয়েছে। আপনার কাছে ভালোমানের ফেসবুক পেজ থাকলে বিভিন্ন অনলাইন মার্কেটিং কোম্পানির কাছে আপনার ফে’সবুক পেজটি বি’ক্রি করে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করতে পারেন।

সাধারণ এক লক্ষ থাকা একটি ফে’সবুক পেজ এক লক্ষ টা’কার চাইতে অধিক দামে বিক্রি করা যায়।

অনলাইন মার্কেটিং এর কাজটি ফে’সবুক অনে’কাংশে সহজ করে দিয়েছে। আপনার যেকোন ধরনের ছোট খাটো ব্যবসা থাকলে আপনি খুব সহজে সেটির ছবি ফেসবুকে শেয়ার করে খুব স’হজে আপনার পন্য ক্রেতাদের হাতে পৌছে দিতে পারেন।

আপনার ফেসবুক পেজে লাইক বেশি থা’কলে লোকজন আপনার প্রোডাক্টগুলো দেখতে পাবে এবং কেউ কেউ সেটি কিনতে অবশ্যই আগ্রহ দেখাব। আপনি যদি স’ততার সাথে পন্য ডে’লিভারি দেন, তাহলে প্রশংসা শুনে আরো হাজারো লোক দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আপনার প্রো’ডাক্ট কিনার জন্য আপনার সাথে যোগাযোগ করবে।

অ্যা’ফিলিয়েট মা’র্কেটিং করে ফে’সবুক থেকে আয়ঃ

অন্যের প্রোডাক্ট বিক্রি করে বি’ক্রয়ের উপর কমিশন নিয়ে অনলাইন থেকে আয় করাকে সহজ ভাষায় অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং বলা হয়। অনলাইনে প্রোডাক্ট বিক্রি বলতে এখন শুধুমাত্র ডিজিটাল প্রোডাক্টকে না বুঝিয়ে সব ধরনের প্রোডাক্টকে বুঝায়।

আপনি নিশ্চয় দেখে থাকেন যে, এর মত আরো বিভিন্ন ধরনের অনলাইন মার্কেট থেকে মানুষ এখনো নিয়মিত প্রোডাক্ট কিনে থাকে। আপনি চাইলে এ ধরনের মা’র্কেটপ্লেসগুলোতে একটি এ’কাউন্ট খোলে খুব সহজে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করতে পারবেন।

অ্যা’ফিলিয়েট মা’র্কেটিং করার জন্য সহ অন্যান্য ডিজিটাল মা’র্কেটপ্লেস গুলোতে আপনি প্রথমে একাউন্ট করে নিবেন। তারপর ঐ ডিজিটাল মার্কেটপ্লেস গু’লোর প্রো’ডাক্ট হতে আপনার পছ’ন্দমত বিভিন্ন পন্যের রেফারাল লিংক তৈরি করে সেটি ফেসবুক পেজে শেয়ার করবেন। আপনার রেফাল লিংকে ক্লিক করে যখন কেউ সেই পন্য কিনবেন তখন পন্যটির দাম হতে শতকরা হিসেবে আপনাকে কিছু টাকা দেওয়া হবে।

এভাবে আপনি যত বেশি প্রো’ডাক্ট সেল করে দিতে পা’রবেন আ’পনি তত বে’শি টাকা আয় করতে পারবেন। সাধারণত ফেসবুকে যাদের প্রচুর পরিমানে ফ’লোয়ার আছে তারা এই কাজটি খুব সহজে করতে পারে।

ফ্রিল্যান্সিং করে ফেসবুক ইনকাম

ফ্রি’ল্যান্সিং জব পা’ওয়ার জন্য ফে’সবুকে নি’র্দিষ্ট কিছু ভালোমানের গ্রুপ আছে। আপনি যে বিষয়ে দক্ষ সে বিষয় নিয়েই ফ্রিল্যা’ন্সিং করে ফেসবুক থেকে আ’য় করতে পারেন। যেমন: ফ্রিল্যান্স রাইটিং, ফ্রিল্যান্স ডিজাইনিং, ফ্রিল্যান্স ফটোগ্রাফি, ফ্রিল্যা’ন্সিং সোশাল মিডিয়া ইত্যাদি।

তবে গ্রুপ নির্বা’চনের ক্ষেত্রে সবচে’য়ে অ্যা’কটিভ গ্রু’পগুলো নির্বাচন করে নিতে হবে। সাধারণত কোন গ্রুপগুলো ভালো সেটা আপনি দেখলে নিজেই বুঝতে পারবেন।

ফেসবুক গ্রুপ থেকে টাকা আয়: অনলাইনে পন্য কেনাকা’ঠার ক্ষেত্রে ফেসবুক গ্রুপ আরো অধিক জনপ্রিয়। ফেসবুকে এমন হাজারো গ্রুপ রয়েছে যেখানে ল’ক্ষ ল’ক্ষ মে’ম্বার রয়েছে। আপনার কোন ব্ল’গ থাকলে ব্লগের পোস্ট বিভিন্ন গ্রুপে শেয়ার করে আপনার ব্লগের আয় সহজে বাড়িয়ে নিতে পারবেন।

তাছাড়া ফেসবুকে বিভিন্ন ধরনের কে’নাকাঠার গ্রুপ রয়েছে। আপনি সেই গ্রু’পগুলোতে জয়েন করে আপনার প্রেডাক্ট বিক্রি করে ফেসবুক থেকে আয় করে নিতে পারেন।

উদাহরণ স্বরুপ, শুধুমাত্র সিলেটের লো’কের জ’ন্য জন্য ফেসবুকে “সিলেটের বে’চা-কেনা” নামে একটি বিশাল গ্রুপ রয়েছে। এই গ্রুপে বর্তমানে কয়েক লক্ষ মেম্বার রয়েছে।

এখানে সিলেটের লোকজন তাদের ব ‘ভন্ন ধ’রনের প্রোডাক্ট ক্রয় বিক্রয় করছে। আমি নিজেও এই গ্রু’প থেকে বেশ কয়েকবার বিভিন্ন জিনিস ক্রয় করেছি।

ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দেওয়ার মাধ্যমে টাকা ইনকাম

অনলাইন বিজ্ঞাপন বা ডিজিটাল বি’জ্ঞাপনের ক্ষেত্রে ফেসবুক বিজ্ঞাপন ব’র্তমানে খুব জনপ্রিয়। আ’পনি চাইলে ফেসবুকে বিভিন্ন জিনিসের বিজ্ঞাপন দিয়ে আপনার প্রোডাক্ট বিক্রয় করে অনলাইন থেকে আয় করতে পারেন।

ধরুন আপনার কোন একটি প্রোডাক্ট আছে যেটি আপনি বিক্রি করতে পারছেন না। এ ক্ষেত্রে আপনি খুব সহজে অল্প টাকা খরছ করে পন্যটির বিজ্ঞাপন ফেসবুকে দিয়ে সেটি বিক্রয় করতে পারেন।
শেষ কথা

আসলে বর্তমানে অনলাইন মার্কেটিং তথা ডিজিটাল মার্কেটিং এর গুরুত্ব এত বেশী বৃদ্ধি পাচ্ছে, যেটা লিখে শেষ করা যাবে না। আপনি চেষ্টা করলে নিজের মেধা কাজে লাগিয়ে উপরের উপায়গুলো ছাড়াও আরো বিভিন্ন উপায়ে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করতে পারবেন। তাছাড়া ফেস’বুকের জনপ্রিয়তা যে হারে বা’ড়ছে তাতেকরে ভিডিও শেয়ারিং এর ক্ষে’ত্রেও ফেসবুক একদিন ইউটিউবকে ছাড়িয়ে যাবে।

কারণ ইউটিউবে শুধুমাত্র ভি’ডিও শেয়ার করা যায় কিন্তু ফেসবুকে একসাথে আ’র্টিকেল, ছবি, ব্লগ পোস্ট করার পাশপাশি ভিডিও আপলোড করা যায়। এ জ’ন্য ধী’রে ধী’র মানুষ ইউটিউব এর চাইতে ফে’সবুককে বেশী গ্রহন করে নিবে। কাজেই আপনি চাইলে শুধু শুধু ফেসবুকে বে’কার স’ময় ব্যয় না করে সামান্য মেধা কাজে লা’গিয়ে একটি ফেসবুক পেজ তৈরি করে ভবিষ্যতের জন্য ফেসবুক থেকে টাকা আয়ের পথ তৈরি করে নিতে পারেন।

Add a Comment

Your email address will not be published.